রায়পুরে টানা বৃষ্টিতে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি

প্রতিবেদক : এমএন /আর
প্রকাশিত: ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ৪:৩৪ অপরাহ্ণ

রায়পুর প্রতিনিধি :লক্ষ্মীপুরের রায়পুরের উপকূলীয় এলাকায় তিনদিনের টানা বৃষ্টিতে তলিয়ে গেছে ৭২০ হেক্টর সয়াবিন ও ৩৫০ হেক্টর জমির ধানক্ষেত। ফলে এবার লোকসানের আশংকায় কৃষকদের মাথায় বাজ পড়েছে। এদিকে তলিয়ে যাওয়ার পরেও আশা ছাড়েননি কৃষকরা। ফসল বাঁচিয়ে রাখতে ক্ষেত থেকে পানি অপসারণের চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে।


উপজেলা কৃষি অফিসসূত্রে জানা যায়, বাংলাদেশের মোট উৎপাদনের ৭০ ভাগ সয়াবিন উৎপাদিত হয় এই উপজেলায়। এখানকার প্রধান অর্থকরী ফসল সয়াবিন। উৎপাদিত এই সয়াবিন বাংলাদেশের বিভিন্ন শিল্প প্রতিষ্ঠানে সরবরাহ করা হয়ে থাকে। কিন্তু গত সোমবার থেকে লঘুচাপের প্রভাবে ভারী বর্ষনে তলীয়ে গেছে কৃষকের স্বপ্নের সয়াবিন ও ধানের বীজতলা। হঠাৎ শেষ সময়ে প্রাকৃতিক এ দুর্যোগের কারণে দিশেহারা হয়ে পড়েছে কৃষকরা। এবার সয়াবিন চাষের লক্ষমাত্র নির্ধারণ করা হয়েছে প্রায় ৮০০ হেক্টরর জমিতে। সাধারণ কৃষকরা।


এরআগে ৩ বছর ধরে সয়াবিন চাষে লাভবান হলেও এবার লোকসানের আশংকা করছেন। উপজেলার জালিয়ারচরের আঃ গণি মাস্টার বলেন, এ বছর ৩একর জমিতে দায়-দেনা করে আড়াই লাখ টাকা খরচ করে সয়াবিন চাষ করেছি। ৩ সপ্তাহ পরেই ফসলঘরে তুলতে পারতাম। হঠাৎ ৩দিন বৃষ্টির কারণে সয়াবিন তলিয়ে যাওয়ায় ভিষণ ভাবনায় পড়ে গেছি। এভাবে শত শত কৃষক তাদের স্বপ্নে বোনা সয়াবিন ক্ষেত পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় চরমভাবে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন। সহজ শর্তে সরাকারী ঋণ ও আনুকূল্য না পেলে এ ক্ষতি পুষিয়ে উঠা সম্ভব নয় বলেও কৃষকরা জানান।