মজনু ৭ দিনের রিমান্ডে

প্রতিবেদক : এমএন /আর
প্রকাশিত: ৯ জানুয়ারি, ২০২০ ৫:৫৮ অপরাহ্ণ

রাজধানীর কুর্মিটুলায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় গ্রেফতার মজনুর ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। বৃহস্পতিবার (৯ জানুয়ারি) দুপুরে ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সরাফুজ্জামান আনছারী শুনানি শেষে এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে মামলায় তদন্ত কর্মকর্তা গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক আবু সিদ্দিক মজনুকে আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন।

আদালত সূত্র জানায়, দুপুর দেড়টায় মজনুকে বিশেষ নিরাপত্তার মাধ্যমে আদালতে হাজির করা হয়। দুপুর ২টা ৫০ মিনেটে তাকে আদালতের এজলাসে নিয়ে আসা হয়। এরপর ২টা ৫২ মিনিটে শুনানি শুরু হয়ে ২টা ৫৮ মিনিটে শেষ হয়।

শুনানিতে বাদী পক্ষের আইনজীবী বাংলাদেশ আইন সমিতির ২৫ সদস্যসহ ঢাকা মহানগর পাবলিক প্রসিকিউটর আব্দুল্লাহ আবু আসামির রিমান্ডের জোর দাবি জানান। তবে আসামি মজনুর পক্ষে কোনো আইনজীবী ছিল না।

রিমান্ড আবেদনে বলা হয়, গত ৫ জানুয়ারি ক্যান্টনমেন্ট থানার কুর্মিটোলা বাসস্ট্যান্ড থেকে ৪০-৫০ গজ সামনে আর্মি গলফ ক্লাব মাঠ সংলগ্ন স্থানে পৌঁছায় ভিকটিম। এরপর আসামি পেছনের দিক থেকে ভিকটিমের গলা ধরে ফুটপাতে ফেলে দেয় এবং গলা চেপে ধরে। ভিকটিম চিৎকার করতে গেলে আসামি তাকে কিল-ঘুষি মেরে ভয়ভীতি দেখালে তিনি অজ্ঞান হয়ে পড়েন। তখন মজনু ভিকটিমকে ধর্ষণ করে। গত ৮ জানুয়ারি ক্যান্টনমেন্ট থানার শেওড়া বাসস্টান্ড এলাকা থেকে র‌্যাব আসামিকে গ্রেফতার করেছে।

আবেদনে আরো বলা হয়, গ্রেফতারের পর ব্যার-১ আসামিকে ডিবি পুলিশে হস্তান্তর করে। জিজ্ঞাসাবাদে আসামি তার নাম ঠিকানা প্রকাশ করে এবং ধর্ষণের বিষয় স্বীকার করে। তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে ভিকটিমের ব্যাগ, মোবাইল ফোন ও পাওয়ার ব্যাংক আসামির একটি জিনসের প্যান্ট ও একটি জ্যাকেট থেকে উদ্ধার করা হয়। সে অভ্যাসগতভাবে ধর্ষণকারী। প্রতিবন্ধী, পাগল ও ভ্রাম্যমাণ নারীদের সঙ্গে অনৈতিক কাজ করে আসছে সে। আসামি ভাসমান অবস্থায় থাকে। তার স্থায়ী কোনো বাসা নেই।