লক্ষ্মীপুরে স্বেচ্ছাসেবক দল নেতার সন্ধান চেয়ে মা-বাবার আহাজারি

প্রতিবেদক : এমএন /আর
প্রকাশিত: ৫ নভেম্বর, ২০১৯ ৭:৩৬ অপরাহ্ণ

লক্ষ্মীপুরে নিখোঁজের চার দিনেও স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা মো. শাহজাহানের (২৮) সন্ধান পাওয়া যায়নি। পরিবারের দাবি, মোটরসাইকেল আরোহী সাদা পোশাকে চারজন পুলিশ তাকে তুলে নিয়ে যায়।

পুলিশ তাদের অভিযোগও নিচ্ছে না। তবে পুলিশ বলছে, ‘তারা এ বিষয়ে কিছু জানে না। দত্তপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য (মেম্বার) খোরশেদ আলম মিরন হত্যা মামলায় শাহজাহান জড়িত থাকতে পারে। তাকে আড়াল করতেই পরিবার থেকে এমন অভিযোগ আনা হতে পারে’।


এদিকে নিখোঁজের পর থেকেই ছেলের জন্য আহাজারি করছেন বৃদ্ধ মা-বাবা। মঙ্গলবার (৫ নভেম্বর) দুপুর ২ টা পর্যন্ত কোথাও শাহজাহানকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। শাহজাহান উপজেলার দত্তপাড়া ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম-আহ্বায়ক ও দত্তপাড়া গ্রামের আলী আহমেদের ছেলে। তিনি পেশায় কৃষক।


স্থানীয়রা ও পরিবারের লোকজন জানায়, গত শনিবার (২ নভেম্বর) সন্ধ্যায় সদর উপজেলার দত্তপাড়া গ্রামের আঁনার দিঘিরপাড় এলাকার মানিকের গ্যাস সিলিন্ডারের দোকানে শাহজাহান বসে ছিল। ঘটনার সময় মোটরসাইকেল আরোহী সাদা পোশাকের চারজন পুলিশ তাকে আটক করে নিয়ে যায়। এরপর থেকে কোথায় তার খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। তবে ঘটনাটি পুলিশ স্বীকার করছে না বলে ভুক্তভোগী পরিবারের অভিযোগ।


শাহজাহানের বাবা আলী আহমদ অভিযোগ করে গণমাধ্যমকর্মীদের বলেন, ‘শাহজাহান আমার সঙ্গে ক্ষেতে কাজ করে। তার বিরুদ্ধে কোনো মামলা নেই। ঘটনার সময় দত্তপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের মুন্সি কিবরিয়াসহ চারজন সাদা পোশাকধারী পুলিশ বিনা কারণে শাহজাহানকে আটক করে নিয়ে যায়।

এরপর থেকে সে নিখোঁজ রয়েছে। তবে পুলিশ ঘটনাটি অস্বীকার করছে। এ ঘটনায় কোনো মামলা বা সাধারণ ডায়েরিও পুলিশ নিচ্ছে না বলে দাবি করেছেন তিনি।


ছেলেকে নির্দোষ দাবি করে মা কুলছুম বেগম বলেন, আমার ছেলে কোনো অপরাধের সঙ্গে জড়িত নয়। এ এলাকার মানুষ সাক্ষী দেবে আমার ছেলে নির্দোষ। আর সে যদি কোনো অন্যায় করে থাকে, তাহলে তাকে শাস্তি দেওয়ার জন্য আইন-আদালত আছে। কিন্তু পুলিশ আমার ছেলেকে ধরে নিয়ে এখন অস্বীকার করছে কেন? আমি আমার ছেলেকে সুস্থ্য অবস্থায় ফিরে পেতে চাই।


দত্তপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মাখন লাল রায় বলেন, নিখোঁজ হওয়ার ঘটনাটি শুনেছি। তবে পরিবারের পক্ষ থেকে আনা অভিযোগটি সত্য নয়। কেউই থানায় অভিযোগ করতে আসেনি। ধারণা করা হচ্ছে, দত্তপাড়া ইউপি সদস্য মিরন হত্যা মামলায় শাহজাহান জড়িত থাকতে পারে। তাকে আড়াল করতেই পরিবার থেকে এমন অভিযোগ আনা হতে পারে। তবে কে বা কারা তাকে তুলে নিয়েছে সেটা আমরা জানি না।