কমলনগরে আ.লীগের কমিটি বাতিলের দাবি

প্রতিবেদক : এমএন /আর
প্রকাশিত: ৪ নভেম্বর, ২০১৯ ১০:৫৬ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক: লক্ষ্মীপুরের কমলনগরের তোরাবগঞ্জ ইউনিয়নের ৯টি ওয়ার্ডের নতুন কমিটিগুলো বাতিলের দাবিতে উত্তাল হয়ে উঠেছে পদবঞ্চিত নেতাকর্মীরা।

অভিযোগ উঠেছে, ‘টাকার বিনিময়ে’ কমিটিগুলো ঘোষণা করা হয়েছে। অভিযোগটি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি একেএম নুরুল আমিন মাস্টার ও সাধারণ সম্পাদক একেএম নুরুল আমিন রাজুর বিরুদ্ধে আনা হয়।

সোমবার (৪ নভেম্বর) রাত সাড়ে ৮ টার দিকে উপজেলার ফাজিল ব্যাপারীর হাটে নতুন কমিটি বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করা হয়।

এরআগে রোববার (৩ নভেম্বর) রাতেও তোরাবগঞ্জ বাজারে একই অভিযোগ এনে তারা বিক্ষোভ মিছিল করে। এদিকে মিছিল থেকে উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা একেএম নুরুল আমিন, একেএম নুরুল আমিন রাজু, তোরাবগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন মেম্বারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন স্লোগান দেয়া হয়।

এসময় জামায়াত-বিএনপির অনুসারীদের দিয়ে কমিটি দেওয়ার অভিযোগ আনে বিক্ষুব্ধরা।

এসময় উপস্থিত ছিলেন তোরাবগঞ্জ ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রার্থী নাসির উদ্দিন, ৭ নম্বর ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী মো. আলাউদ্দিন, ৪ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবুল বাশার ও প্রার্থী নুরুল ইসলাম। পদবঞ্চিতরা অভিযোগ করে জানায়, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা নাসির মেম্বারের মাধ্যমে উপজেলা কমিটির সভাপতি ও সম্পাদক ওয়ার্ডের প্রার্থীদের কাছ থেকে টাকা দাবি করে। নেতাদের চাহিদা মত টাকা দিতে না পারায় তাদেরকে পদবঞ্চিত করা হয়েছে। পরে টাকার বিনিময়ে পছন্দের লোক দিয়ে কমিটি দিয়েছে। নতুন এসব কমিটি বিলুপ্তি ঘোষণা করে ত্যাগীদের হাতে নেতৃত্ব দেয়ার দাবি জানানো হয়।

ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রার্থী নাসির উদ্দিন বলেন, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নাসির মেম্বার আমাকে সভাপতি করবে বলে ৫০ হাজার টাকা চেয়েছিল। আমি তাকে ৩৫ হাজার টাকা দিয়েছি। বাকি টাকা দিতে না পারায় আমাকে সভাপতি করা হয়নি।

এ ব্যাপারে কমলনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি একেএম নুরুল আমিন বলেন, উপজেলা নির্বাচনের নৌকার প্রার্থীর বিপক্ষে যারা কাজ করেছে তাদেরকে কমিটিতে রাখা হয়নি। এজন্য পদবঞ্চিতরা আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ তুলেছে। টাকার বিনিময়ে কোন কমিটি দেওয়া হয়নি।

কমলনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মাদ নুরুল আবছার বলেন, অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে পুলিশ সবসময় সতর্ক রয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ২৪ সেপ্টেম্বর তোরাবগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। কিন্তু ওইদিন কমিটি ঘোষণা না করে শনিবার (২ নভেম্বর) গভীর রাতে ৯টি ওয়ার্ডের কমিটি প্রকাশ করা হয়েছে।